আজ ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শ্রীপুরে অপহরণ করে হত্যার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ 

গাজীপুর:

গাজীপুরের শ্রীপুরে স্কুল ছাত্রকে অপহরণ করে গলাকেটে হত্যার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ।

আজ সোমবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম জানান, গত ২৬ শে সেপ্টেম্বর বিকেল আনুমানিক সাড়ে পাঁচটার দিকে নিহত রামিমুল ইসলাম বিজয়(১৪) নিখোঁজ হয়। নিখোঁজ হওয়ার পর শ্রীপুর থানায় একটি নিখোঁজ জিডি দায়ের করেন নিহতের চাচা জুয়েল বেপারী। নিখোঁজ জিডির প্রেক্ষিতে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে সনাক্ত করে তিনজনকে আটক করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ  করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে।
এ ঘটনায় নিহত রামিমুলের মা বাদী হয়ে গতকাল  তিনজনের নাম উল্লেখ করে শ্রীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলার প্রেক্ষিতে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, গাজীপুরের শ্রীপুরের চন্নাপাড়া এলাকার মৃত নূর হোসেনের ছেলে জুয়েল বেপারী(৩৭), একই এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে জোবায়ের ইসলাম জিহাদ(২০) এবং ময়মনসিংহের নান্দাইল থানার গাছ দরিল্লা এলাকার মজনু মিয়ার ছেলে উজ্জ্বল মিয়া ওরফের শামীম(২৫)।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গত ২৬সেপ্টেম্বর ২০২৩ বিকাল অনুমান সাড়ে পাঁচটার দিকে শ্রীপুরর গোসিঙ্গা ইউনিয়নের কর্ণপুর গ্রামের খিলাউফুই টেক নামক গজারি বনের ভিতর নিয়ে ধারালো অস্ত্র দ্বারা নিহত রামিমুল ইসলাম বিজয়(১৪)কে গলা কেটে দেহ হতে মাথা বিচ্ছিন্ন করে হত্যা করে। ১নং আসামী জুয়েল বেপারী হত্যার বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য অতি উৎসাহি হয়ে নিহত রামিমুলের মায়ের সহিত কোন প্রকার পরামর্শ না করে শ্রীপুর থানায় উপরোক্ত নিখোঁজ জিডি এন্ট্রি করেছিল। ১নং আসামী রামিমুল নিখোঁজের বিষয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন প্রকার তালবাহানামূলক কথা বলে উক্ত নিখোঁজের বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করে। নিখোঁজের পর রামিমুল এর মোবাইল নম্বর থেকে ১নং আসামী তার সহযোগিদের মাধ্যমে ১নং আসামীকে ফোন করিয়ে রামিমুলের মাকে বলে আপনার ছেলেকে অপহরণ করা হয়েছে এবং মুক্তিপণ হিসেবে দশ লক্ষ টাকা দিতে হবে বলে জানায়। ১নং আসামী জুয়েল বেপারী আর রামিমুলের বাবার  ব্যাংকে থাকা টাকা হতে ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা থেকেই ২ ও ৩নং আসামীর সাথে নিয়া পরস্পর যোগসাজসে রামিমুলকে অপহরণ করে গলা কেটে হত্যা করে।

ওসি নাসিম আরো জানান, গত ২৬ শে সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে রামিমুল বাড়ি থেকে নিখোজ হয়। নিখোঁজের পাঁচ দিন পর গতকাল শ্রীপুর থানা পুলিশ শ্রীপুরের কর্ণপুর গজারি বন থেকে গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে।
#####

Share

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ